Breaking News 🗞️

6/recent/ticker-posts

Ftipshere || পিএম কেয়ার্স ফান্ডে ১.৫ কোটি টাকা অনুদান PUBG-র নির্মাতা সংস্থার

পিএম কেয়ার্স ফান্ডে ১.৫ কোটি টাকা অনুদান PUBG-র নির্মাতা সংস্থার

Pubgg

দেশজুড়ে প্রতিদিন হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রাবল্য এত বেশি যে বেসামাল হয়ে পড়েছে ভারতীয় স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। দেশব্যাপী হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের আকাল, শয্যার অভাব-ফলে মানুষ অহরহ প্রাণ হারাচ্ছে। ভয়াবহ এই সময়ে সবাই এখন চেষ্টা করছেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে। এছাড়াও বিভিন্ন দেশ, জনপ্রিয় সংস্থা ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। এই তালিকায় নতুন সংযোজন হল PUBG-র ডেভেলপিং সংস্থা ক্র্যাফ্টন (Krafton) এর নাম। কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের পাশে থাকতে দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থাটি পিএম কেয়ার্স ফান্ডে (PM CARES Fund) ১.৫ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে। 
Pubg


প্রসঙ্গত, গত বছর ভারতে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলের পাশাপাশি আলাদা করে মহামারির জন্য পিএম কেয়ার্স ফান্ড (PM CARES Fund) গঠন করা হয়েছিল। প্রথম দফাতেও বিপুল পরিমাণ অর্থ জমা পড়েছিল পিএম কেয়ার্স ফান্ডে। এবার দ্বিতীয় দফার এই ভয়ঙ্কর আক্রমণ রুখতে এবং পরিকাঠামোগত উন্নয়ন সাধনের জন্য অনেক ব্যক্তি ও সংস্থার সহযোগিতায় পাঁচ দিনেই পিএম কেয়ার্স ফান্ডে প্রায় ৩০৭৬ কোটি টাকা জমা পড়েছে বলে জানা গেছে। 

পিএম কেয়ার্স ফান্ডে ইতিমধ্যেই গুগল, অ্যামাজন, মাইক্রোসফ্টের মতো বড়ো সংস্থাগুলি অনুদান দিয়েছে। এবার এই তালিকায় নাম লেখালো ক্র্যাফ্টন (Krafton)। ক্র্যাফ্টনের (Krafton) অনুদানটি তাদের নব্যগঠিত ভারতীয় সহায়ক সংস্থার মাধ্যমে এসেছে। গত বছর জুনে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ইন্দো-চীন সংঘর্ষের পরে ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক অক্টোবর মাসে পাবজি মোবাইল সহ ১১৮ টি চায়নিজ মোবাইল অ্যাপকে ভারতে ব্যান করে দেয়। তারপর থেকেই পাবজি গেমের নির্মাতা সংস্থা ক্র্যাফ্টন (Krafton) চেষ্টা করছে ভারতে ফিরে আসার জন্য। যদিও এখনও তারা ভারত সরকারের সবুজ সঙ্কেত পায়নি। তার পরও এই দুর্দিনে ভারতের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ক্র্যাফ্টনকে (Krafton) কুর্নিশ জানাতেই হয়। 

ক্র্যাফ্টনের (Krafton) চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (CEO), চাংহান কিম এই বিষয়ে বলেছেন, "ভারতবর্ষ এখন কোভিডের নতুন ঢেউয়ে মারাত্মকভাবে বিপর্যস্ত। আমরা এই নজিরবিহীন সংকটময় পরিস্থিতির মোকাবিলায় সরকারের প্রচেষ্টাকে সমর্থন করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা আশা করি পিএম কেয়ার্স ফান্ডে জন্য আমাদের অবদান বর্তমানে ভারতের সর্বস্তরের প্রচেষ্টাকে সহায়তা করবে।" সংস্থা এও জানিয়েছে যে তাঁরা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ভারতের সঙ্গে হাতে হাত মেলাতে প্রস্তুত।

Post a Comment

0 Comments